logo



আমার লেখালেখি



আমার প্রিয় লেখা



আমার ছবিঘর



অনলাইনে আছেন

আব্দুল্লাহ-আল-নোমান এর নতুন বন্ধু নাজমুল


আমাদের সাথে আছেন ৬০ জন অতিথী
  

আব্দুল্লাহ-আল-নোমান এর অনলাইন ডায়েরী

আপনাদের সকলের উপর আল্লাহর শান্তি, রহমত এবং বরকত বর্ষিত হোক

ডায়েরী লিখছেন ৭ বছর ১১ মাস ২৬ দিন
মোট পোষ্ট ৬১টি, মন্তব্য করেছেন ১৫৪টি


মাশরাফি বাদ : নড়াইলে সকাল সন্ধা হরতাল

লিখেছেন : আব্দুল্লাহ-আল-নোমান       তারিখ: ২০-০১-২০১১



অস্ট্রেলিয়া দলে রয়েছেন মাইক হাসি ও রিকি পন্টিং। ভারতীয় দলে রয়েছেন শচীন টেন্ডুলকার, বীরেন্দ্র শেবাগ ও গৌতম গম্ভীর। দক্ষিণ আফ্রিকা দলে আছেন জ্যাক ক্যালিস। আর নিউজিল্যান্ড দলে রয়েছেন জ্যাকব ওরাম। এরা সবাই কমবেশি ইনজুরিতে ভুগছেন। অথচ এদের বিশ্বকাপ দলে নিতে দ্বিতীয়বার ভাবতে হয়নি দেশগুলোর ক্রিকেট বোর্ডকে। কিন্তু একই অজুহাতে বাংলাদেশের ১৫ জনের বিশ্বকাপ দলে জায়গা হয়নি দেশের এক নম্বর পেসার মাশরাফি বিন মুর্তজার।

২৭ বছর বয়সী এই পেসারের ডান হাঁটুতে ইনজুরি রয়েছে। তা থেকে সেরে ওঠার লড়াই করছেন তিনি। মাঠে নেমে হালকা অনুশীলনও করছেন। লক্ষ্য ছিল দেশের মাটিতে বিশ্বকাপ খেলা। কিন্তু নির্বাচকরা মাশরাফিকে সেই সুযোগ দিলেন না। নির্বাচক কমিটির প্রধান রফিকুল হকের কথা, ‘বিশ্বকাপের আগে মাশরাফির পুরোপুরি ফিট হওয়ার সম্ভাবনা খুবই ক্ষীণ।’ তাই এমন সিদ্ধান্ত। যাতে কোচ জেমি সিডন্সেরও সায় আছে বলে জানিয়েছেন রফিকুল। তবে একটি ফাঁক রেখেছেন তিনি। বলেছেন, ‘হ্যাঁ, পুরো ফিট হলে মাশরাফি পরে দলে অন্তর্ভুক্ত হতেও পারে। তবে সে ক্ষেত্রে সুযোগের অপেক্ষায় থাকতে হবে।’ সুযোগ বলতে সম্ভবত বিশ্বকাপের ঠিক আগে চূড়ান্ত দলের কেউ ইনজুরিতে পড়লে তার বদলি হিসেবে মাশরাফির অন্তর্ভুক্তির সম্ভাবনাই বোঝাতে চেয়েছেন রফিকুল। যদিও তা খোলাসা করে বলেননি।

অবশ্য আগে থেকেই অনেকটা অনুমান করা যাচ্ছিল, বিশ্বকাপের চূড়ান্ত দলে থাকতে পারবেন না মাশরাফি বিন মুর্তজা। কিন্তু তারপরও চূড়ান্ত দল ঘোষণার আগ পর্যন্ত সবাই আশায় বুক বেঁধেছিলেন, শেষ পর্যন্ত হয়তো বিশ্বকাপে বাংলাদেশের বোলিং আক্রমণের সূচনা করতে দেখা যাবে ‘নড়াইল এক্সপ্রেস’কে। কিন্তু সেটা আর সম্ভব হলো না। মাশরাফিকে ছাড়াই ঘোষিত হলো বিশ্বকাপের চূড়ান্ত দল। যে খবরটা পাওয়ার পর কাল জাতীয় দলের শিবির থেকে চোখ মুছতে মুছতে ফিরে গেছেন তিনি।

এ সময়ের সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের কাঁধেই দেয়া হয়েছে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ স্বপ্নের ভার। সহ-অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন তামিম ইকবাল। এটা অবশ্য পুরনো খবরই। সাবেক অধিনায়ক আশরাফুলকে নিয়ে অনেক বিতর্ক থাকলেও শেষ পর্যন্ত বিশ্বকাপের মতো বড় আসরে তার মতো একজন অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যানকে দলের বাইরে রাখতে পারেননি বাংলাদেশের নির্বাচকরা। আশরাফুলের সঙ্গে দীর্ঘদিন পর দলে সুযোগ পেয়েছেন শাহরিয়ার নাফীস। বাংলাদেশ ব্যাটিংয়ের টপঅর্ডারে নাফীসের উপস্থিতি অনেক ফলপ্রসূ হবে বলেই মনে করছেন নির্বাচকরা।

বোলিং আক্রমণের কৌশল সাজাতে গিয়ে উপমহাদেশের কন্ডিশন মাথায় রেখে স্পিনারদেরই প্রাধান্য দিয়েছেন নির্বাচকরা। চূড়ান্ত দলে জায়গা পেয়েছেন পাঁচ স্পিনার রাজ্জাক, সাকিব, মাহমুদুল্লাহ, নাইম ইসলাম ও সোহরাওয়ার্দী। মাশরাফির অনুপস্থিতিতে বাংলাদেশের পেস আক্রমণের নেতৃত্ব দেবেন শফিউল ইসলাম, নাজমুল হোসেন, রুবেল হোসেন।

আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারি ঢাকার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচ দিয়ে শুরু হবে ২০১১ বিশ্বকাপ ক্রিকেট। গত ২০০৭ বিশ্বকাপে সুপার এইটে উঠেছিল বাংলাদেশ। এবার ওই সাফল্যকেও ছাড়িয়ে যেতে চায় সাকিবের দল।

৩০৭৩ বার পঠিত

 
২০-০১-২০১১
রোকন বলেছেন: দলে মাশরাফিকে দেখতে চাই


০২-০২-২০১১
আব্দুল্লাহ-আল-নোমান জবাবে বলেছেন: মাথা-মোটা কে দলে দরকার নাই।

মন্তব্য করতে লগিন করুন।
  

সাম্প্রতিক মন্তব্য







ছবিঘরের নতুন ছবি